যাক না মন একান্ত হয়ে

যাক না মন একান্ত হয়ে
গুরু গোঁসাইয়ের রাগ লয়ে ।।

চাতকের প্রাণ যদি যায় তবু কি অন্য জল খায়
উর্ধ্বমুখ থাকে সদায় নবঘন জল চেয়ে
তেমনি মতো হলে সাধন
সিদ্ধি হবে এই দেহে ।।

এক নিরিখ দেখো ধণী সূর্য্যগত কমলিনী
দিনে বিকশিত তেমনি নিশীথে মুদিত
তেমনি জেনো ভক্তের লক্ষণ
একরূপে বান্ধে হিয়ে ।।

বহু বেদ পড়াশুনা শুনিতে পাই রে মনা
সদাশিব যোগী সে না কিঞ্চিত ধ্যান করিয়ে
ও সে শ্মশানে মশানে ফেরে
কিঞ্চিতের লাগিয়া ।।

গুরু ছেড়ে গৌর ভজে তাতে নরকে মজে
দেখনা মন পুঁথি-পাঁজি সত্য কি মিথ্যা কহে
মন তোরে বোঝাব কত
লালন কয় দিন যায় বয়ে ।।